মঙ্গলবার - জুলাই ১৬ - ২০১৯ ||
Home / অর্থনীতি / রপ্তানিতে অর্ধেকেরও বেশি কর-সুবিধা দিবে নতুন সরকার

রপ্তানিতে অর্ধেকেরও বেশি কর-সুবিধা দিবে নতুন সরকার

শিল্পখাতের উন্নয়ন ও বিস্তৃতির লক্ষ্যে রপ্তানিতে গত সেপ্টেম্বরেই উৎসে কর কমিয়ে দশমিক ৬০ শতাংশ করেছিল শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার। গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ে পুনরায় নতুন সরকার গঠন করতে যাচ্ছে জোটটি। যেখানে নতুন সরকারের অধীনে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সেই কর প্রায় অর্ধেকেরও বেশী কমিয়ে আনা হয়েছে।

এক তথ্যে বলা হয়েছে, এখন থেকে পাট ছাড়া যেকোনো পণ্য রপ্তানি করলে উৎসে কর দশমিক ২৫ শতাংশ দিলেই চলবে।

রপ্তানি খাতে ব্যবসায়ীদের উৎসাহিত করতে সরকারের এমন সিদ্ধান্তের ফলে রপ্তানির পরিমাণ বাড়বে বলে মানছেন খোদ শিল্পমালিকেরা। সূত্রে জানাগেছে, চলতি অর্থবছরে ৩ হাজার ২৬৮ কোটি ডলারের তৈরি পোশাক রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

গত সপ্তাহে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের (আইআরডি) এক প্রজ্ঞাপনে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত নতুন এই কর-সুবিধা পাবে শিল্প মালিকরা। তবে নির্দিষ্ট সময় শেষে আগের অবস্থায়, অর্থাৎ ১ শতাংশ হারে উৎসে কর দিতে হবে।

নতুন সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া এই কর-সুবিধার ফলে পোশাকসহ রপ্তানি খাতের শিল্প মালিকদের মুনাফার হার বাড়বে বলে মনে করছেন অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা। এভাবে বাড়তি সুবিধা দেওয়ায় অর্থবছরের মাঝখানে সরকারের রাজস্ব আদায় কিছুটা কমবে বলেও মনে করছেন তারা। বিশেষজ্ঞদের মতে দেশের সকল পণ্যের রপ্তানির মধ্যে তৈরি পোশাক খাতে ৮৩ শতাংশেরও বেশি। এতে পোশাক মালিকরা সবচেয়ে বেশি নতুন কর-সুবিধা পাবে।

এনবিআর সূত্র জানিয়েছে, চলতি অর্থবছরে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে উৎসে কর হিসেবে ২ হাজার কোটি টাকা কর আদায়ের লক্ষ্য রয়েছে। উৎসে কর কমানোর ফলে ৪০০-৫০০ কোটি টাকার রাজস্ব কমতে পারে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, উৎসে কর ছাড়া পোশাক উৎপাদক ও রপ্তানিকারকদের বার্ষিক আয়ের ওপর ১২ শতাংশ হারে কর্পোরেট কর দিতে হবে। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সবুজ কারখানা হলে ওই মালিককে ১০ শতাংশ হারে কর দিলেই হবে। এ দুটি সুবিধাই আগামী বছরের জুন মাস পর্যন্ত থাকবে।

বিভিন্ন সময়ে রপ্তানি খাতে বর্তমান সরকারের দেয়া নানান সুযোগ-সুবিধার ফলে গত দশ বছরে পোশাক খাতে যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে বলে পোশক খাতের মালিকরা স্বীকার করেছেন বহুবার। তবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলতি অর্থবছরের জুলাই মাস থেকে উৎসে করহার ১ শতাংশ হয়ে যায়। এরপর গত সেপ্টেম্বর মাসে ব্যবসায়ীদের দাবি অনুযায়ী কর কমিয়ে দশমিক ৬ শতাংশ করে সরকার। তারপরও ব্যবসায়ীরা উৎসে কর পুরোপুরি প্রত্যাহারের দাবি জানান। কিন্তু সার্বিক দিকে বিবেচনা করে শেষ পর্যন্ত তৈরি পোশাকসহ অন্য রপ্তানি পণ্যের উৎসে কর কমিয়ে দশমিক ২৫ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নেয় বর্তমান সরকার। যা একই সরকারের নতুন মেয়াদ থেকে কার্যকর হবে।

About মো: শামসুজ্জোহা, গাইবান্ধা

Check Also

শাহজাদপুর উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভার বাজেট ঘোষণা

স্বাধীন কথা ডটকম, সোমবার, ৩ জুন -২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ : শাহজাদপুর উপজেলা পরিষদ ও শাহজাদপুর পৌরসভার …

শাহজাদপুরে ঈদ আনন্দ নেই কৃষকের ঘরে

স্বাধীন কথা ডটকম, শামছুর রহমান শিশির, ২ জুন- ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ : চলতি বছর শাহজাদপুর উপজেলার …

ভোলায় পাচারকালে চার লাখ বাগদা রেণু জব্দ

স্বাধীনকথা ডট কম ইকরামুল আলম ভোলা সদর উপজেলায় পাচারকালে প্রায় চার লক্ষ পিছ বাগদা রেণু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *